৩০০০০০ বছর আগে আমাদের পৃথিবী দেখতে কেমন ছিল

৩০০০০০ বছর আগে আমাদের পৃথিবী দেখতে কেমন ছিল

Old Earth


৩ লক্ষ বছর আগে আমাদের পৃথিবী দেখতে কেমন ছিল, কেমন প্রাণী বসবাস করতো, কেমন ছিল তখনকার আবহাওয়া। এসকল প্রশ্ন আমাদের মনে প্রায়ই আসে। বিজ্ঞানীরা গবেষণার মাধ্যমে বের করতে সক্ষম হয়েছে আজ থেকে ৩ লক্ষ বছর আগে পৃথিবী দেখতে কেমন ছিল ও সে সময় কেমন প্রাণীদের বসবাস ছিল পৃথিবীতে।

$ads={1}

• Australia (অস্ট্রেলিয়া) : আজ থেকে তিন লক্ষ বছর আগে অস্ট্রেলিয়ায় বিভিন্ন প্রজাতির পশুপাখি বসবাস করতো। তাদের মধ্যে একটি ছিল মেইওলানিয়া। পৃথিবী থেকে কয়েক হাজার বছর আগে বিলুপ্ত হয়ে যাওয়া একটি কচ্ছপের প্রজাতি হলো মেইওলানিয়া। বর্তমান সময়ে পাওয়া যাওয়া কচ্ছপের থেকে এটি সম্পূর্ণ ভিন্ন ছিল। এই কচ্ছপটির খোলের মধ্যে খাঁজকাটা কাটা ছিল। কচ্ছপটির মাথায় দুটি শিং এবং লেজের মধ্যে খাঁজকাটা ছিল। এরা বর্তমান সময়ের কচ্ছপ থেকে অনেক বড় হতো। এদের আকার দুই মিটারের বেশি ছিল। বিজ্ঞানীরা ধারণা করেন মেইওলানিয়া পানির নিচে থাকত শুধুমাত্র ডিম দেয়ার সময় এলে স্থলে উঠে আসতো। কিন্তু কিছু বিজ্ঞানীরা এই তথ্য কে অস্বীকার কর। তাদের মতে মেইওলানিয়া পানি এবং স্থল উভয় জায়গায় বসবাস করত। ১৮২৮ সালে বিজ্ঞানীরা প্রমাণ করেন মেইওলানিয়া পানিতে বসবাস করতো এবং এদের শিং ও খাঁজকাটা খোলস দিয়ে নিজেদের শত্রুর হাত থেকে রক্ষা করতো।

• North America (উত্তর আমেরিকা) : ৩ লক্ষ বছর আগে পৃথিবীতে বিভিন্ন ধরনের প্রাণীর বসবাস ছিল। এদের মধ্যে একটি বিচিত্র প্রাণী ছিল নটরথেরিওপস (Nothrotheriops)। যাদের শুধুমাত্র উত্তর আমেরিকায় পাওয়া যেত। এরা স্লথের প্রাচীন প্রজাতি। এরা আকারে বর্তমান সময়ে পাওয়া স্লথের থেকে অনেক বড় ছিল। এরা ওজনে ২৫০ কেজি এবং লম্বায় ২.৭ মিটার ছিল। এদের মুখের সামনের দিকে কোন ধরনের দাঁত ছিল না এবং অন্য দাঁত গুলোও অনেক ছোট হতো। উত্তর আমেরিকার বিভিন্ন জায়গায় এর ফসিল পাওয়া গেছে। বিজ্ঞানীরা ধারণা করেন ২.৭ মিলিয়ন বছর আগে এরা পৃথিবীতে বসবাস করা শুরু করে ও ১১ হাজার বছর আগে পৃথিবী থেকে বিলুপ্ত হয়ে যায়। এরা উদ্ভিদভোজী প্রাণী ছিল। নটরথেরিওপস গাছের পাতা এবং ফুল খেয়ে জীবন যাপন করতো। এদের বিলুপ্তির কারণ ছিল খাদ্যের অভাব। উত্তর আমেরিকায় গাছের সংখ্যা কমতে থাকায় এরা ধীরে ধীরে বিলুপ্ত হতে থাকে।

$ads={2}

• Asia (এশিয়া) : ৩ লক্ষ বছর আগে এশিয়ায় যে সকল প্রাণী পাওয়া যেত তাদের সঙ্গে বর্তমান সময়ে পাওয়া প্রাণীদের অনেক সাদৃশ্য রয়েছে। কিন্তু এরা আকারে বর্তমান সময়ের প্রাণীদের তুলনায় অনেক বড় হতো। বিচিত্র সব প্রাণী দের মধ্যে একটি ছিল জায়েন্ট টেপির (Giant Tapir)। যাদের চীন এবং ভিয়েতনামে পাওয়া যেত। এরা দেখতে বর্তমান সময়ের টেপির এর মত ছিল, কিন্তু আকারে বড় ছিল। এরা ২.১ মিটার লম্বা এবং ৫০০ কেজি ওজনের হত। এদের ব্যাপারে বিজ্ঞানীরা এখনো তেমন কিছু জানতে পারেনি। সর্বপ্রথম ১৯২৩ সালে চীনের একটি খননকাজের সময় এর কঙ্কাল পাওয়া যায, যেটির আকার ৫৩ সেন্টিমিটার ছিল।

• Europe (ইউরোপ) : ৩ লক্ষ বছর আগে ইউরোপে পাওয়া যাওয়া হিংস্র প্রাণীদের মধ্যে অন্যতম ছিল হোমোথেরিয়াম (Homotherium)। যাদের সাবের তুর্থড কেটসও বলা হয়। এরা ৪ মিলিয়ন বছর আগে পৃথিবীতে বসবাস করা শুরু করে এবং আজ থেকে ১২ হাজার বছর আগে পৃথিবী থেকে বিলুপ্ত হয়ে যায়। আফ্রিকা থেকে ১.৫ মিলিয়ন বছর আগে এরা বিলুপ্ত হয়ে যায়। এরপর ধীরে ধীরে অন্য স্থান থেকেও এরা বিলুপ্ত হতে শুরু করে। এরা আকারে যেমন বিশাল ছিল তেমনই শক্তিশালী ছিল। হোমোথেরিয়াম তার শিকারকে একটি কামড়েই মারার ক্ষমতা রাখত। এদের বিলুপ্ত হওয়ার কারণ ছিল পৃথিবীর জলবায়ু পরিবর্তন।

• Africa (আফ্রিকা) : ৩ লক্ষ বছর আগে আফ্রিকাতে বিচিত্র সব প্রাণীর বসবাস ছিল। এদের মধ্যে একটি প্রাণী ছিল পেলোরোভিস (Pelorovis)। পৃথিবীতে ২.৫ মিলিয়ন বছর আগে এদের অস্তিত্বের সৃষ্টি হয় এবং ১২ হাজার বছর আগের বিলুপ্ত হয়ে যায়। সর্বপ্রথম ১৮৫১ সালে বিজ্ঞানীরা এদের ফসিল খুঁজে পায়। তখন এর নাম রাখা হয় বুবালাস (Bubalus)। এরা খুবই শান্ত প্রজাতির প্রাণী ছিল। এদের মাথায় ২.৫ মিটার লম্বা শিং থাকতো এবং এদের ওজন ২০০০ কেজি পর্যন্ত হত। পেলোরোভিস পৃথিবীর সবচেয়ে বড় বাফেলো প্রজাতি ছিল। বিভিন্ন প্রাচীন গুহায় পাথরে খোদাই করা পেলোরোভিসের চিত্র খুঁজে পাওয়া গেছে। এর থেকে বোঝা যায় এদের সাথে প্রাচীন মানুষদের একটি গভীর সম্পর্ক ছিল।

• দক্ষিণ আমেরিকা (South America) : দক্ষিণ আমেরিকায় বসবাসকৃত বিচিত্র সব প্রাণীর মধ্যে একটি হলো ম্যাক্রোচেনিয়া (Macrauchenia)। ম্যাক্রোচেনিয়ার অনেকগুলো প্রজাতি ছিল। পৃথিবীতে ৭ মিলিয়ন বছর আগে এরা অস্তিত্বে আসে এবং ১০ হাজার বছর আগে বিলুপ্ত হয়ে যায়। এরা লম্বায় ৩ মিটার এবং ১০০০ ওজনের কেজি ছিল। ম্যাক্রোচেনিয়া একটি উটের জাতি ছিল। কিন্তু বর্তমান সময়ের উটের সাথে এদের কোনো মিল খুঁজে পাওয়া যায় না। সর্বপ্রথম ১৮৩৪ সালে এদের ফসিল খুঁজে পাওয়া যায়। বর্তমান সময়ে ম্যাক্রোচেনিয়ার মতো দেখতে কোনো প্রাণী পৃথিবীতে দেখা যায় না। এরা উদ্ভিদভোজী প্রাণী ছিল। দক্ষিণ আমেরিকায় জন্মানো এক বিশেষ ধরনের গাছের পাতা ছিল এদের প্রধান খাবার।

৩ লক্ষ বছর আগে পৃথিবীতে এসকল বিচিত্র প্রাণী বসবাস করত। জলবায়ু পরিবর্তন এবং খাদ্যের অভাব সকল প্রাণীর বিলুপ্ত হয়ে যাওয়ার প্রধান কারণ। জলবায়ুর পরিবর্তন না হলে হয়তো এ সকল প্রাণী আজও পৃথিবীতে আমাদের সাথে বসবাস করতো।

Post a Comment

নবীনতর পূর্বতন