ইতিহাসের ১০ টি অজানা তথ্য

ইতিহাসের ১০ টি অজানা তথ্য

Unknown Historical Fact


রুশের বিপ্লবী ব্যক্তি স্টারলিনকে প্রায় সবাই চিনে, কিন্তু স্টারলিন কেন তার নিজের নাম পরিবর্তন করেছিল তা অনেকেরই অজানা। বিশ্বের ইতিহাসে একমাত্র ব্যক্তি যে দুইবার পরমাণু বোমা হামলার জায়গায় থেকেও বেঁচে গিয়েছিল। ইতিহাসের এমন ১০ টি অজানা তথ্য নিয়েই আজকের এই লেখনী।

$ads={1}

১. পৃথিবীতে আজ পর্যন্ত ২ টি পরমাণু বোমা হামলা হয়েছে এবং এ দু'টি বোমা হামলা থেকেই একজন ব্যক্তি বেঁচে ফিরেছেন। শুনতে অবাক হলেও এটি সত্য। জাপানের এক নৌ ইঞ্জিনিয়ার যার নাম টসুটোমু ইয়ামাগুচি এবং ১৯৪৫ সালে সে ২৯ বছর বয়সের ছিল। সে ১৯৪৫ সালে একটি ব্যবসার কাজে ৩ মাসের জন্য হিরোশিমায় আসেন। আর তখনই আমেরিকা হিরোশিমায় পারমানবিক বোমা ফেলে। যে জায়গায় আমেরিকা বোমা ফেলেছিল সে জায়গা থেকে ইয়ামাগুচি ২ কিলোমিটার দূরে ছিল। কিন্তু সে এই বোমা হামলা থেকে বেঁচে যায়। হিরোশিমা ধ্বংস হয়ে যাওয়ায় সে আবার নিজের বাড়ি নাগাসাকিতে ফিরে যায়। তার কয়েকদিন পরেই আমেরিকা নাগাসাকিতে দ্বিতীয় পারমানবিক বোমা ফেলে। এই বোমা হামলায় সে কিছুটা আহত হলেও জীবিত বেঁচে ফিরে। অর্থাৎ সে দুটি পারোমানিক বোমা হামলা থেকেই বেঁচে গিয়েছিলেন।

২. রুশের বিপ্লবী স্টারলিনের নাম প্রায় সবারই জানা আছে। কিন্তু তার আসল নাম স্টারলিন নয়। তার আসল নাম জোসেফ ভিসারিওনোভিচ। স্টিলকে রুশের ভাষায় স্টারলিন বলা হয়। রুশের মানুষ যখন জোসেফকে স্টারলিন অর্থাৎ লোহার মত শক্ত ব্যক্তি বলে ডাকতে শুরু করে, তখন তার নামটি পছন্দ হয়ে যায়। তাই সে তার নাম পরিবর্তন করে স্টারলিন রেখে দেয়। আর এ নামেই আজ বিশ্বাস তাকে চেনে।

$ads={2}

৩. জোসেফকে স্টারলিন অর্থাৎ লোহার মত শক্ত ব্যক্তি বলে ডাকা হলেও তিনি আসলে তেমন ছিলেন না। স্টারলিন এর কাছের মানুষ গুলির একজন ছিল নিকিতা ক্রুশ্চেভ। তিনি স্টারলিন এর জীবনীর ওপর একটি বই লিখেন। যেখানে তিনি উল্লেখ করেন স্টারলিনকে সবাই অনেক অনেক শক্ত ব্যক্তি মনে করলেও তিনি আসলে অনেক ভীতু ছিলেন। তিনি সব সময় খাবার খাওয়ার আগে সেই খাবারগুলো তার নিকট আত্মীয়দের খাওয়াতেন তারপর নিজে খেতেন। খাবার তার নিজের মেয়েই রান্না করতো। নিকিতা তার বইটিতে আরও এ ধরনের অনেক তথ্য তুলে ধরেন।

৪. প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময় ভারত ইংরেজদের অধীনে ছিল। তাই ইংল্যান্ড যুদ্ধের জন্য ভারত থেকে সেনাবাহিনী নিয়ে যায়। এ যুদ্ধে প্রায় ৮০ হাজার ভারতীয় সেনাবাহিনী মারা যায়। তাদের স্মরণেই ইন্ডিয়া গেইট তৈরি করা হয়।

৫. ১৮০০ শতাব্দীর দিকে ইংল্যান্ড প্রায় বিশ্বের অর্ধেক তাদের অধীনে নিয়ে এসেছিল। যে সকল দেশ তাদের অধীনতা স্বীকার করতো না তাদের সাথে তারা যুদ্ধ শুরু করে দিত। ১৮৫৬ সালে এমনই হয়েছে একটি দেশের সাথে যা আজ তানজানিয়া নামে পরিচিত। তানজানিয়া ইংরেজদের অধীনতা অস্বীকার করলে ইংরেজরা তানজানিয়ায় আক্রমণ করেন। কিন্তু যুদ্ধ শুরু হওয়ার ৪০ মিনিটের মধ্যেই তানজানিয়া আত্মসমর্পণ করে। তাই একে বিশ্বের সবচেয়ে ছোট যুদ্ধ বলা হয়।

৬. চেঙ্গিস খান ছিল বিশ্বের সবচেয়ে নির্দয় ব্যক্তিদের একজন। তার সেনাবাহিনী যে দেশে আক্রমন করত সে দেশ ১০০ বছর পিছিয়ে যেত। কিন্তু চেঙ্গিস খান সকল ধর্মকে সম্মান করতো এবং কোন ধর্মকে ছোট মনে করত না। তিনি বিভিন্ন ধর্মের ব্যক্তিদের সঙ্গে চলাফেরা করতেন এবং তাদের থেকে সে ধর্মের কিছু শিখতে চেষ্টা করতেন।

৭. বিশ্বের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় কোম্পানি ছিল ডাচ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি। বর্তমান সময়ে এই কোম্পানির মূল্য প্রায় 4.4 ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলার। এ কোম্পানিটি ছিল নেদারল্যান্ডের একটি কোম্পানি।

৮. ১৯১১ সালের আগে ভারতের রাজধানী ছিল কলকাতা। কিন্তু ১৯১১ সালে কলকাতাকে পরিবর্তন করে দিল্লিকে ভারতের রাজধানী ঘোষণা করা হয়।

৯. ইজরায়েলের প্রথম রাষ্ট্রপতি হিসেবে আলবার্ট আইনস্টাইন কে মনোনীত করা হয়। ১৯৫২ সালে তাকে যখন এই প্রস্তাব দেয়া হয় তিনি সাথে সাথে না করে দেয়।

১০. লিচেনস্টেইন ইউরোপের একটি ছোট দেশ। ১৮৬৬ সালে লিচেনস্টেইন ইতালির ওপর হামলা চালায়। অবাক করার বিষয় হলো মাত্র ৮০ জন সেনাবাহিনী নিয়ে তারা ইতালির উপর হামলা চালায়।

এই ছিল ইতিহাসের দশটি অজানা তথ্য।

Post a Comment

নবীনতর পূর্বতন